পর্তুগালে করোনায় ম্লান ঈদের আনন্দ

সেপ্টেম্বর / ১৮ / ২০২১ | ০১:২৮ অপরাহ্ন

ভিন্ন আবহে যথাযোগ্য মর্যাদায় ইউরোপের দেশ পর্তুগালে পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) করোনা পরিস্থিতিতে গত বছরের মতো এবার ভিন্ন আবহে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পর্তুগালে মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হয়েছে।

‘‘হে আল্লাহ, যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সুস্থতা দান করুন। আপনি এই ভাইরাস থেকে পৃথিবীকে রক্ষা করুন, আমাদের মাফ করুন। সারা পৃথিবীর মানুষকে মাফ করে দিন। সারাবিশ্বকে করোনামুক্ত করে দিন। আমিন। ’ লিসবনের সেন্টাল মসজিদেও ঈদের প্রথম জামাত শেষে এভাবেই আরবিতে মোনাজাতে আকুতি করেন সেন্টাল মসজিদের ইমাম মাওলানা শেখ ডেভিড মুনির।

পর্তুগালে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ঈদকে ঘিরে যে আনন্দ-উচ্ছাস থাকার কথা তা এবার ম্লান করে দিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস, সঙ্গে যোগ হয়েছে পর্তুগালে রাজধানীতে বাংলাদেশি অধ্যুষিত মাতৃ মনিজ এলাকায় করোনার ভয়াবহ অবস্থা।

বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় গত বারের মতো এবারও খোলা মাঠে ঈদুল আজহার নামাজের জামাত আয়োজনের অনুমতি দেয়নি পর্তুগাল প্রশাসন। তাই পর্তুগাল সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্ত সাপেক্ষে স্থানীয় মসজিদগুলোতে নামাজের আয়োজন করা হয়। 

তবে রাজধানী লিসবনের প্রত্যেকটি মসজিদে মুসল্লিদের ভিড় ছিল লক্ষণীয়। পর্তুগালের সেন্ট্রাল মসজিদ লিসবনে প্রথম জামাত সকাল ৬টায় অনুষ্ঠিত হয়। ঈদ জামাতে বাংলাদেশিসহ পর্তুগালে বসবাসরত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা অংশ নেন। লিসবনের বাঙালি অধ্যুষিত মুরারিয়া এলাকায় বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদ (বড় মসজিদ) ও মাতৃ মনিজ জামে মসজিদে ঈদের আটটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানী লিসবন ছাড়াও পর্তুগালের পোর্তো, আলগ্রাভসহ দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা ঈদের নামাজ আদায় করেছেন।

View Main Post